জিরা পানির ঔষধী গুনাগুন।

জিরার পানীয় গ্রীষ্মকালীন একটি জনপ্রিয় খাবার। এর রয়েছে অনেক উপকারীতা। এটি খাওয়া স্বাস্থ্যর জন্য বেশ উপকারী।
জিরা পানির ঔষধী গুনাগুন কালে জিরার গুনাগুন, কালো জিরার তেলের গুণ, kalojirar tel er upokarita, kalojirar upokarita, মধু এবং কালোজিরার উপকারিতা, চুলে কালোজিরা তেলের উপকারিতা,
জিরা পানির ঔষধী গুনাগুন।
১। গ্যাসের সমস্যা দূরীকরণে : যাদের পেটে গ্যাসের সমস্যা আছে তারা জিরাপানি খেলে উপকার পেতে পারেন। এছাড়াও যদি গ্যাসের কারনে পেট ফুলে থাকে তাহলে ধীরে ধীরে জিরাপানি খেতে পারেন যতক্ষন না পেটের গ্যাস দূর হয়।

২। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে : এতে আয়রনের পাশাপাশি বেশ ভালো পরিমান ভিটামিন এ ও সি থাকে যা থেকে অ্যান্টি অক্সিডেণ্টের সুবিধা পাওয়া যায়। জিরা আয়রনের চমৎকার একটি উৎস। যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার কাজ পরিচালনা করার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

৩। রক্তশূন্যতার চিকিৎসায়: জিরাতে থাকা বিভিন্ন আয়রন রক্তস্রোতে অক্সিজেন বহনকারী হিমোগ্লোবিনের পরিমান বৃদ্ধি করে। এতে করে জিরা পানি আয়রনের অভাব জনিত রক্তশূন্যতার জন্য বেশ উপকারী ভূমিকা পালন করে।

৪। অ্যাসিডিটি কমাতে : অ্যাসিডিটি কমাতে জিরা কোন তুলনা হয় না। এছাড়া যেকোনো ভারী খাবার খাওয়ার পর ধীরে ধীরে জিরাপানি খেয়ে নিলে অ্যাসিডিটির আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

৫। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে : জিরাপানি পানের আর উপকারিতা হচ্ছে কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে মুক্তি পাবেন। তাই যাদের কোষ্ঠকাঠিন্য আছে তারা দিনে দুইবার এই পানীয়টি পান করলে বেশ উপকার পাবেন।

৬। ওজন কমাতে জিরাপানি : জিরা পানি ওজন কমাতে সাহায্য করে। দিনে দু’বার এই জিরাপানি খেলে পেটের ক্ষুধা কমে যায়। যার ফলে খাওয়ার ইচ্ছেটাও কমে যায়।

৭। বমি বমি ভাব দূর করতে: জিরাপানি বমি বমি ভাব দূর করতে সাহায্য করে তাই গর্ভবতী নারীরা এটি পান করতে পারেন ‘মর্নিং সিকনেস’ থেকে মুক্তি পেতে।

৮। ভালো ঘুমের জন্য : যাদের ঘুমের সমস্যা আছে তাদের জন্য জিরাপানি খুব উপকারী। নিয়মিত খেলে আশা রাখি ভালো ঘুম হয়।

৯। স্মৃতিশক্তি উন্নত করে : জিরা মস্তিস্কের শক্তি বাড়াতে সাহায্য উন্নত করে। তাই অল্প বয়স থেকেই যদি জিরাপানি খাওয়া যায় তাহলে তা উল্লেখযোগ্য ভাবে স্মৃতিশক্তি ও বুদ্ধিমত্তাকে তীক্ষ্ণ করবে।

১০। গর্ভবতী স্তন্যদাত্রী মায়েদের বাড়তি পুষ্টির জন্য : জিরাতে থাকা আয়রন যা গর্ভবতী ও স্তন্যদাত্রী মায়েদের জন্য খুবই ভালো। এটা গর্ভস্থ ভ্রুণের, বাচ্চার এবং মায়ের আয়রনের চাহিদা মেটাতে সাহায্য করে থাকে।

১১। তলপেটের ব্যাথা কমাতে: নারীরা মাসের বিশেষ দিনগুলোতে তলপেটে ব্যাথা অনুভব করে থাকেন। তাদের এই ব্যাথা কমাতে অল্প অল্প করে সারাদিন জিরাপানি খেতে পারেন। এতে কিছুটা ব্যাথা কমে যাবে।

১২। ত্বকের জন্য জিরা পানির স্বাস্থ্য উপকারিতা : যখন দেহ আভ্যন্তরীণভাবে স্বাস্থ্যবান থাকে তা ত্বকের মাঝে প্রতিফলিত হয়।এই জিরা পানি দেহকে আভ্যন্তরীণ ভাবে শক্তিশালী ও স্বাস্থ্যবান করে তাই করে এর ফলে ত্বক এর গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব পরে।

১৩। ত্বকের পুষ্টি যোগাতে : জিরাপানি ত্বককে
প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান শুষে নিয়ে স্বাস্থ্যবান ও পুষ্ট থাকতে সাহায্য করে।

১৪। ব্রণের চিকিৎসায় : জিরা পানি ব্রণের জন্য প্রাকৃতিক ঔষধ হিসেবে কাজ করে।

১৫। ত্বকের আরামের জন্য : জিরাপানি ত্বকের জ্বালাপোড়া ভাব কমাতে সাহায্য করে।

More...

নতুন নতুন update news পেতে আমাদের
ফেসবুক পেজটি লাইক দিয়ে এক্টিভ থাকুন।
Previous
Next Post »