চুলকানি সারাতে চিরতার উপকারিতা

চুলকানি সারাতে চিরতার উপকারিতা,

Benefits of chronic itching
চিরকালের তিতা গাছ বলে হয়তো বাংলায় এর নাম দেয়া হয়েছে চিরতা। কালোমেঘ গাছও তিতা। সে গাছের বাংলা নাম কালোমেঘ, ইংরেজী নামের অর্থ সবুজ চিরতা। তবে চিরতা ও সবুজ চিরতা আলাদা দুটি গাছ। চিরতা স্বাদে তেতো হলেও ঔষধি গুণে অনন্য। আপনার যদি চুলকানি সমস্যা থাকে তবে চিরতা আপনার ভীষণ কাজে আসবে। অ্যালার্জি ছাড়াও হঠাৎ করে হাত-পায়ে চুলকানি শুরু হয়ে যেতে পারে। এটি খুব সাধারণ একটি ব্যাপার আর কিন্তু এই ব্যপারটি বিরক্তি পর্যায়ে চলে যায় যখন চুলকানি না থামে। আর বার বার চুলকাতে থাকে। সংবেদনশালী ত্বক যাদের তারা চুলকাতে চুলকাতে লাল করে ফেলে। এই চুলকানির হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য অনেকেই বিভিন্ন মলম ব্যবহার করে থাকেন। তবে আজকে জানবো চুলকানি সারাতে চিরতার উপকারিতা ও ব্যাবহার।

জেনে নেওয়া যাক চুলকানি সারাতে
চিরতার উপকারিতা ও ব্যাবহার

উপকরণ:
(১) ২০ গ্রাম চিরতা
(২) ১০০ গ্রাম সরষের তেল

তৈরি ও ব্যবহার পদ্ধতি:
(১) প্রথমে ২০ গ্রাম চিরতাতে অল্প পানি ছিটিয়ে বেটে বা ছেঁচে নিতে হবে।
(২) তারপর তা লোহার কড়াই বা তাওয়াতে ১০০ গ্রাম সরষের তেল দিয়ে জ্বাল দিয়ে হবে।
(৩) সরষের তেল গরম হয়ে ফেনামুক্ত হলে তাতে চিরতা ছাড়তে হবে।
(৪) ভালো করে ভাজা হলে নামিয়ে ছাঁকতে হবে খেয়াল রাখতে হবে চিরতা যেন পুড়ে না যায়।
(৫) এই তেল চুলকানোর জায়গায় ঘষে অল্প অল্প করে মালিশ করলে দ্রুত চুলকানি সেরে যাবে।

তাহলে জেনে গেলেন তো কিভাবে আপনার চুলকানি সমস্যায় চিরতা আপনাকে প্রতিকার দিবে তাহলে আর দেরি কেনো আজই তৈরি করে নিন এবং ব্যবহার করুন।
Previous
Next Post »