প্রতিশোধে ধর্ষন ~ WriterMosharef

প্রতিশোধে ধর্ষন

প্রতিশোধে ধর্ষন, প্রতিশোধ, প্রতিশোধের আগুন, প্রতিশোধ নিয়ে উক্তি, প্রতিশোধের গল্প, ধর্ষন প্রতিশোধের গল্প, revenge rape, short story, WriterMosharef

সকালে ঘুম থেকে উঠে ব্রাশে টুথপেস্ট লাগিয়ে পূর্বের অভ্যাস ন্যায় আজও হাঁটতে হাঁটতে ব্রাশ করতে লাগলাম। রাস্তায় বেরোতেই জায়গায় জায়গায় কিছু মানুষ একত্রিত হয়ে কোনো বিষয় নিয়ে আলোচনা করছে মনে হলো।একজন কে ডাক দিয়ে জিজ্ঞেস করলাম।

রিফাত ভাই, কি হইছে এলাকায়! এতো আলোচনা কিসের?

আরে আর বইলোনা,আমাগো পাশের বাড়ির শান্তা মেয়েটা কে চিনোনা, ওরে কিছু বখাটে পোলাপান তুলে নিয়ে তার শ্লীলতাহানি করেছে।

কি বলেন ভাই? কেডা করলো এই কাজ?

আরে থাকেনা কিছু গাঁজাখুরি পোলাপান, যারা মেয়ে দেখলেই লুচ্চামি করে।

কোন বাড়ির! নাম কি?
নামটা মুখে আনতেও ঘেন্না লাগতেছে।মীরি বাড়ির দীপু আর হের লগের পোলাপান।

দীপু! আমি তো জানতাম ও ভালো ছেলে।
ভদ্র ছেলে, ওই জানোয়ার টা ভদ্র হয় কি করে?
আচ্ছা, শান্তার সাথে কি হইছিলো দীপুর?
আর বইলোনা ভাই, এমন ভদ্র একটা মাইয়া দশ গ্রামে খুঁজে পাইবানা।কখনো কারো সাথে খারাপ ব্যবহার করেনি। রাস্তা-ঘাটে কারো সাথে কথা বলা তো দূরের কথা, চোখ তুলেও তাকায়নি। আর হেই মাইয়ারে জানোয়ার দীপু।

আচ্ছা রিফাত ভাই, শান্তা এখন কই?
শান্তা তো হাসপাতালে। তয় দীপু জানোয়ার রে পুলিশ ধইরা নিয়ে গেছে।

ও, তাইলে তো ভালোই হইলো। ঠিক আছে ভাই, জান আপনি।

দীপু কে পুলিশ জেলে নিয়ে গেছে।অপরাধ সে শান্তাকে ধর্ষণ করেছে।এটা অবশ্যই একটা নিচ কর্ম।কিন্তু মাথায় ঢুকছেইনা দীপু এমন কেনো করলো?দীপু তো শান্তা কে পাগলের মতো ভালোবাসে।

এর আগের বার বাড়িতে আসার পর একদিন দুজনকে একসাথে দেখে ফেলেছিলাম।সেদিন বাধ্য হয়েই আমার কাছে সব কাহিনী বলতে হলো।

কারণ আমার লাভস্টোরি শুনতে খুব ভালো লাগে।সেদিন তাদের দুজনেরই বক্তব্য ছিলো তারা দুজন দুজনকে খুব ভালোবাসে। কে বেশি ভালোবাসে,তা নিয়ে ঝগড়া করেছিলো আমার সামনে।

শান্তা মেয়েটা অতি ভদ্র সেটা সবাই বলে।সেদিন একটু হোঁচটই খেলাম সেটা দেখে।যদিও ভালবাসা কোনো অন্যায় কিংবা দোষের কিছু নয়।সেদিনকার পর থেকেই দীপুর সাথে ভালো রিলেশন হয়ে ওঠে।তবে ওর মাঝে কখনো ধর্ষকচিত্র দেখিনি।

এখন মনে হচ্ছে সব কিছু তার সাজানোই ছিলো।শান্তাকে ভালবাসা নয়,ভোগ করাই ছিলো তার লক্ষ্য।এইসব ভাবতে ভাবতেই দীপুকে কয়েকটা গালি দিয়ে মনে মনে বললাম,"হালা তোর এই ছিলো উদ্দেশ্য, তোর ভালো ব্যবহারের ভিতরে এইগুলা ছিলো?"অন্য সবার
মতো আমিও তাকে খারাপ ছেলে ভেবেই নিলাম।এটাই স্বাভাবিক।

বিকেলে দীপুর একটা বন্ধুর সাথে দেখা হয়।পরে তাকে জিজ্ঞেস করেছিলাম সে কিছু জানে কিনা।কিন্তু সে কিছুই বলতে চাইছিলোনা।অনেক জোরাজুরি করার পর সে বলতে বাধ্য হয়।

আবির ভাই,আপনি তো এলাকায় থাকেন না।তাই জানেন না কে কেমন?শান্তা মেয়েটা খুব ভালো,সেটা এলাকার সবাই জানে।দীপুও খুব ভালো ছেলে ছিলো,এখন সবার কাছেই খারাপ।কারণ সে ৩টা
ভুল কাজ করেছে।

ভুল কাজ?কি ভুল কাজ?
আবির ভাই,আপনি তো জানেন ও শান্তা কে খুব ভালোবাসে।এটা তার একটা ভুল।আরেকটা ভুল হলো ধর্ষন করাটা,আর শেষ টা হলো প্রতিশোধ,যা ভালবাসা কিংবা ভালো মানুষের বিরুদ্ধে নিতে হয়না।

--প্রতিশোধ?কিসের প্রতিশোধ?
--শান্তা মেয়েটা খুব ভালো এবং ভদ্র।কিন্তু সে দীপু কে
ভালোবেসে স্বপ্ন দেখিয়েছিলো।
--তাতে দোষের কি?ভালোবাসা তো অন্যায় নয়।
--বহুমুখী ভালোবাসা টা তো অন্যায়।
--মানে?
--দীপু শান্তা কে খুব ভালোবাসে।শান্তাও একসময় অভিনয়
করেছিলো।পরে একদিন শান্তা যেকোনো কারণে ব্রেক আপ করে
দেয়।কারণ সে বেটার কাউকে পেয়েছে। দীপু তবুও শান্তার পিছন
পিছন ঘুরে।তার হাতে-পায়ে ধরতেও রাজী হয় ভালোবাসা কে
ফিরে পেতে।কারণ শান্তাকে দীপু খুব বেশি ভালোবাসে।কিন্তু
তার বিনিময়ে শুধু অবহেলাই পায়।
--তাই বলে এতো জঘন্য কাজ করবে?
--আগে পুরোটা শুনুন।নতুন যে ছেলেটার সাথে রিলেশন হয়
শান্তার,তার সাথে হেঁটে বেড়ায় ক্যাম্পাস।সেদিন দীপু আর আমি
শান্তাকে বুঝাতে গিয়েছিলাম।কিন্তু শান্তা সবার সামনেই প্রচন্ড
অপমান করার সাথে সাথে ধর্ষণ করে দীপুর জমিয়ে রাখা হাজারো
স্বপ্ন-আশাকে।ক্ষুণ করে দীপুর সমস্ত মানবতাকে।আজকের এই
জানোয়ার ধর্ষক সেদিন সবার সামনেই কেঁদেছিল।আমাকে জড়িয়ে
ধরে কেঁদেছিল।হ্যাঁ,হয়তো দীপু কাজটা মোটেও ঠিক করেনি।কিন্তু
দীপুর জায়গায় আমি থাকলে ক্ষুণ করতাম শান্তা নামের ভালো
মেয়েটাকে।দীপু তো শান্তাকে সবার অন্তরালে ধর্ষণ করে সযত্নে
বাড়িতে দিয়ে গেছে.কিন্তু শান্তা তো সেদিন ক্যাম্পাসের সবার
সামনেই ধর্ষণ করেছিলো দীপুর সাজানো সব স্বপ্ন-আশাকে।একটা
মেয়ে তার ইজ্জত হারিয়ে যেভাবে বাঁচে,একটা ছেলে তার স্বপ্ন
গুলোকে হারিয়ে ঠিক সেভাবেই বাঁচে।পার্থক্য শুধু শান্তার মুখ
দেখানো টা লজ্জাজনক লাগলেও কষ্টটা সবাই বুঝে সমর্থন করবে
তাকে।আর দীপুর কষ্টটা রয়ে যাবে সবার অগোচরে।দীপু সবার
কাছে অমানুষ ধর্ষক হলেও আমার কাছে সে উচিত কাজটি করেছে।
আমি বলছিনা দীপুর কাজটি ঠিক হয়েছে।শুধু শান্তার সেইদিনের
আচরণের জন্য এটা তার স্বাভাবিক প্রাপ্য।হয়তো শান্তা সবার
কাছে ভালো আর দীপু সবার কাছে ধর্ষক জানোয়ার।কিন্তু আমার
কাছে তার বিপরীত টা।
Previous
Next Post »